‘ছোট ছোট বিষয়ে’ হাই কোর্টে মামলা নিয়ে ‘বিরক্তি’; মোদীর সামনেই রিজিজুকে তোপ মমতার

সাম্প্রতিককালে বিভিন্ন ইস্যুতে কলকাতা হাই কোর্টে অস্বস্তির মুখে পড়তে হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে। এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি থেকে বগটুই, বারংবার তৃণমূল ‘অসন্তুষ্ট’ হয়েছে উচ্চ আদালতের নির্দেশে। এই আবহে দিল্লিতে হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি এবং মুখ্যমন্ত্রীদের যৌথ সম্মেলনে মমতা ‘ছোট ছোট বিষয়ে’ জনস্বার্থ মামলা নিয়ে সরব হলেন। মমতার কথায়, এই সব ছোট ইস্যুতে জনস্বার্থ মামলার জেরে আটকে যাচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানি। এদিকে কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি নিয়োগের ফাইল আটকে থাকা নিয়ে সরব হন মমতা। কেন্দ্রের উদ্দেশে মমতার প্রশ্ন, ‘কেন তিন-চার বছর ধরে আটকে রাখা হয়েছে বিচারপতি নিয়োগের ফাইল?’ (আরও পড়ুন: ‘পিকে আমাদের সঙ্গে’, ভোটকুশলীকে নিয়ে জল্পনায় ইতি টানলেন মমতা)

বিচারপতি নিয়োগ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কিরেন রিজিজুর বক্তব্য, কিছু নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া মেনে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়। এর জবাবে মমতা কড়া ভাষা প্রয়োগ করেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মানছি যে কেন্দ্রকে বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে কিছু প্রক্রিয়া মেনে কাজ করতে হয়। কিন্তু আমাকে একটা কথা বলুন, সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম বিচারপতির নাম সুপারিশ করেছে। মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপাল সেই নামের তালিকায় সই করেছেন। তার পরেও কেন্দ্রীয় সরকার কেন নিয়োগ আটকে রেখেছে?’

এদিকে এদিন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মমতা তোপ দাগলেও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কুশল বিনিময় করতে দেখা যায় তাঁকে। রাজ্য-কেন্দ্র সম্পর্কের তিক্ততার মাঝে এ এক অনন্য দৃশ্য। সম্মেলনে মোদীর বক্তৃতার প্রশংসা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। প্রধানমন্ত্রী ও দেশের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানাকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন মমতা। এরপর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একান্তে কিছুক্ষণ কথাও হয় তাঁর। তবে কী নিয়ে দুই নেতার মধ্যে কথা হয়েছে, তা জানা যায়নি। তবে এই কয়েক মিনিটের বার্তালাপ নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

.